Pesticide বা বালাইনাষক কি? ও পেস্টিসাইডের প্রকারভেদ

Pesticide বা বালাইনাষক কি

Pesticide বা বালাইনাষক কি? যারা কৃষি কাজের সাথে জড়িত আছেন, তাদের Pesticide বা বালাইনাষক সম্পর্কে কিছুটা ধারনা রাখা অত্যান্ত প্রয়োজন।

যেমনঃ- বালাইনাষক কত ধরনের হতে পারে? কোনটি কীভাবে কাজ করে? কোন বালাই এর জন্য কোন Pesticide বা বালাইনাষক ব্যবহার করা যেতে পারে? কোনটি কখন ব্যবহার করা উত্তম?

তাছাড়া একইসাথে কিছু পোকা-মাকড়কেও চিনে রাখা জরুরী, যেগুলো সাধারণত সব জায়গায় দেখা যায়, ফসলের ব্যপক ক্ষতিসাধণ করে। ফসলের কিছু কমন ভাইরাসবাহী, ছত্রাক জনিত ও ব্যকটেরিয়াজনিত রোগ সম্পর্কেও ধারণা রাখা দরকার। সেজন্য বালাইনাশকের নাম ও ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকা খুব জরুরী। আমরা আজকে বালাইনাশকের ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

বালাইনাশক সম্পর্কে জানার উপকারিতা

এ সকল বিষয়ে কিছুটা জ্ঞান রাখলে যে যে উপকার হতে পারেঃ-

  • অন্যেরা ভুল পরামর্শ দিলে তা বুঝতে পারবেন।
  • ক্ষতি হওয়ার আগেই সমস্যা চিহ্নিত করতে পারবেন।
  • ছোট-খাট বিষয়ে বার বার অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের হাত-পা ধরতে হবে না।
  • অভিজ্ঞদের চুড়ান্ত পরামর্শ পাওয়ার আগেই আপনি সাময়িক ব্যবস্থা নিতে পারবেন।
  • আপনার প্রকৃত সমস্যাটি চিহ্নিত করতে ও বর্ণনা করতে পারবেন।

আসলে বহু জায়গায় এমন কীটনাষক বিক্রেতাও আছেন, যাহারা জীবনে কখনও কাঁদায় পা মোবারক রাখেন নাই। তাহারা শুধু বিক্রি করতেই জানেন। এদের পরামর্শে ত্রুটি থাকতেই পারে। এর দায়ভার তারা নেবে না। আপনার বোঝা আপনাকেই বহন করতে হবে। তাই এ বিষয়ে কিছুটা জ্ঞান রাখা অত্যান্ত জরুরী, বিশেষ করে বর্তমান শিক্ষিত কৃষকদের। Pesticide বা বালাইনাষক কি? সেটা আগে আমাদের জানতে হবে। তাই এ বিষয়ে আমার স্বল্প জ্ঞানে যতটুকু সম্ভব আলোচনা করার চেষ্টা করলাম। ভুলত্রুটি হয়ে থাকলে জানিয়ে দেয়ার জন্য অনুরোধ করলাম।

Pesticide (পেস্টিসাইড) বা বালাইনাষক কী? কতো প্রকার ও কী কী?

Pesticide শব্দটি দুইটি অংশ দ্বারা গঠিত। Pest (পেস্ট) এবং Cide (সাইড)। Pesticide সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হলে প্রথমে জানতে হবে-

Pest কী? কারা Pest এর অর্ন্তভুক্ত?

Pest (পেস্ট)- কৃষি ক্ষেত্রে ফসল উৎপাদনের বিভিন্ন পর্যায়ে যে সকল উদ্ভিদ বা প্রাণী প্রত্যক্ষ বা পরক্ষভাবে মানুষের ক্ষতি সাধন করে থাকে, তাদেরকে Pest বা বালাই বলে। উদাহরণসরুপ- বিভিন্ন ধরনের পোকা-মাকড় ফসল নষ্ট করে মানুষের ক্ষতি করে থাকে, তাহলে পোকা-মাকড় (Insects) হচ্ছে এক ধরনের pest.

ছত্রাক, ব্যকটেরিয়া এবং ভাইরাস বিভিন্ন রোগ ছড়িয়ে ফসলের ক্ষতি করে থাকে। তাহলে এগুলোও এক প্রকার Pest.

বিভিন্ন প্রকার আগাছা ফসলের ক্ষতি করে থাকে। তাহলে আগাছাও এক প্রকার pest.

Pest এর আওতায় ইদুরের নাম কিন্তু মোটেও পিছিয়ে দেয়া যাবে না, কারণ পেস্ট এর দায়িত্ব নেভাতে সে মোটেও অলসতা করে না। এভাবে ছাগল, গরু, শেয়াল, কুকুর, পাখি সহ যেই ফসলের ক্ষতি করবে-সেই Pest এর আওতায় চলে আসবে। এমনকি কোন মানুষের কারণে যদি ফসলের ব্যপক ক্ষতি হয়, তাহলে সে অবস্থায় তাকেও Pest বলা যেতে পারে।

Cide কী? কারা Cide এর অর্ন্তভুক্ত?

Cide- শব্দটি ল্যাটিন শব্দ Caido থেকে এসেছে যার অর্থ হত্যা করা। এবার আমরা Pesticide এর সংজ্ঞায় বলতে পারি… Pest কে হত্যা করার জন্য যে ওষুধ, তাকেই Pesticide বা বালাইনাষক বলা হয়। পেস্ট প্রতিরোধ করতে বা ধ্বংস করতে বা এদের তীব্রতা হ্রাস করতে যে সকল বস্তু বা বস্তুর মিশ্রণ ব্যবহার করা হয়, সেগুলোকে পেস্টিসাইড বলে।

পেস্টিসাইডের প্রকারভেদ

পেস্টিসাইডের প্রকারভেদ:- পেস্টিসাইডকে প্রধানত ৩ শ্রেণীতে ভাগ করা হয়। Accourding to….

1. Nature of pesticide – পেস্টিসাইডের প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে।

2. Mode of action – কাজের ধরনের ভিত্তিতে।

3. Chemical nature – রাসায়নিক গঠন অনুযায়ী।

Nature of Pesticide এর প্রকারভেদ

1. Nature of pesticide বা পেস্টিসাইডের প্রাকৃতির উপর ভিত্তি করে একে ৮ শ্রেণীতে ভাগ করা হয়েছে।

  1. কীটনাষক – Insecticide
  2. ছত্রাকনাষক – Fungicide
  3. আগাছানাষক – Herbicide
  4. ইদুর নাষক – Rodenticide
  5. কৃমি নাষক – Newmatiocide
  6. মাকড় নাষক – Acaricide
  7. শৈবাল নাষক – Algicide
  8. শামুক নাষক – Limacides
Mode of Action এর প্রকারভেদ

2. Mode of action – কাজের ধরনের ভিত্তি করে বালাইনাষককে ৩ ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

  1. Stomac – পাকস্থলীয়
  2. Contact – স্পর্শক
  3. Fumigant – গ্যাসীয়
  4. (Residual) স্থানীয় প্রবেশ ধমীর্ বিষ
  5. (Fumigants) ধুম্র বিষ
Chemical Nature এর প্রকারভেদ

3. Chemical nature – রাসায়নিক গঠন অনুযাী বালাইনাষককে প্রধাণত ২ ভাগে ভাগ করা হয়।

  1. Inorganic – ইনঅর্গানিক
  2. Organic – অর্গানিক

অর্গানিক বালাইনাশককে আবার ক. প্রাকৃতিক ও খ. সংশ্লেষিত এই দুই ভাগ করা হয়েছে।

ইনশাল্লাহ, আগামিতে এই বিষয়গুলো নিয়ে সহজ ও ব্যবহারিকভাবে আলোচনা করার চেষ্টা করবো যতে একজন সাধারণ কৃষকও পড়ে বুঝতে পারে। সকলের জন্য কল্যান কামনা রইলো।

লেখক

মোঃ মহিউদ্দিন অনিক

রাজশাহী